শীর্ষ 10 টি সংবাদপত্র

বাংলাদেশের শীর্ষ 10 টি সংবাদপত্র

বাংলাদেশের শীর্ষ 10 টি সংবাদপত্র

সংবাদপত্র দিন বা দিনের জীবনের একটি গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গ-এটি আমরা শৈশব থেকেই শিখছি, এর সাথে নতুন কিছু নয়। সময়ের সাথে সাথে সংবাদপত্রগুলি আরও সহজলভ্য হয়ে উঠেছে এবং আরও জনপ্রিয়তা অর্জন করেছে। আমরা আজকাল অনলাইনেও পড়তে পারি বলে আজকাল সংবাদপত্রগুলি অনেক বেশি জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে।

তাই খবরের কাগজের পাঠকদের সংখ্যা দিন দিন বাড়ছে মাত্র। কেউ কেউ হাতে ধরে খবরের কাগজ পড়ছেন আবার কেউ কেউ অনলাইনে তা পড়ছেন। তবে বিশ্বব্যাপী প্রতিদিনের ঘটনার বিষয়ে জানতে আমরা কোনওভাবেই সংবাদপত্রগুলির উপর নির্ভরশীল। বাংলাদেশে মূলত দুটি সংস্করণ পত্রিকা রয়েছে। একটি সংস্করণ ইংরেজি ভাষায় এবং অন্যটি বাংলাতে ছাপা হয়। আসুন দেখে নেওয়া যাক বাংলাদেশের শীর্ষ 10 সংবাদপত্রের সংযুক্ত তালিকা।

10. দৈনিক নয়া দিগন্ত

বিখ্যাত সংবাদপত্র ‘নয়া দিগন্ত’ এর অর্থ “একটি নতুন দিন”। এই সংবাদপত্রটি বিশ্বজুড়ে কী ঘটছে তা তাদের পাঠকদের মাধ্যমে পাঠকদের জীবনে আলোকপাত করে। এটি সংবাদ প্রকাশের সময় নিরপেক্ষ হওয়ার চেষ্টা করে। সংবাদপত্র কর্তৃপক্ষ প্রতিদিন প্রায় 90,650 অনুলিপি প্রিন্ট করে।

পত্রিকাটি 2004 সালে প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল। দিগন্ত মিডিয়া কর্পোরেশন এই সংবাদপত্রের মালিক। জনপ্রিয় এই সংবাদপত্রের প্রকাশক হলেন শামসুল হুদা এবং সম্পাদক নাম আলমগীর মহিউদ্দিন।

তাদের সদর দফতরটি 1 আরকে মিশন রোড মানিক মিয়া ফাউন্ডেশন, মতিঝিল, .ঢাকার। Www.dailynayadiganta.com এর মাধ্যমে আপনি তাদের অনলাইন সংস্করণটি পড়তে পারেন।

09. দৈনিক সমকাল

দৈনিক সমকাল প্রথম প্রকাশিত হয়েছিল ৩১ শে মে ২০০৫-তে। মুস্তাফিজ শফি এটির সম্পাদক নাম। টাইমস মিডিয়া লিমিটেড এবং হা-মীম গ্রুপ এই পত্রিকাটির মালিক এবং একে সর্বাধিক পঠিত সংবাদপত্রের প্রকাশক এ কে আজাদ। প্রতিদিনের এই সংবাদপত্রের সঞ্চালনের সংখ্যা প্রায় 2,70,000।

পাঠকদের আকাঙ্ক্ষা অনুসারে সংবাদপত্রটি রূপান্তরিত হয় এবং সে কারণেই এটি পাঠকদের মধ্যে খুব জনপ্রিয় “সমকাল” নামটি আসলে সংবাদপত্রের মূলমন্ত্রকে উপস্থাপন করে যার অর্থ “বর্তমান যুগ”

তাদের সদর দফতর ঢাকায়। এবং এই সংবাদপত্রটি অনলাইনে পড়ার ওয়েব ঠিকানাটি হ’ল www.samakal.com

08. নতুন বয়স

“দ্য নিউ এজ” ২০০৩ সালের জুনে প্রথমবার প্রকাশিত হয়েছিল। মিডিয়া নিউ এজ লিঃ এই সংবাদপত্রের মালিক। সম্পাদকের নাম নুরুল কবির।

এই সংবাদপত্রটি মূলত তরুণদের মধ্যে জনপ্রিয়। এই পত্রিকার সাংবাদিকরা বিভিন্ন ইস্যুতে খুব আকর্ষণীয়ভাবে লেখেন। এই সংবাদপত্রের সমাজে বসবাসকারী মানুষের মানসিকতায় ইতিবাচক পরিবর্তন আনার উদাহরণ রয়েছে। এই পত্রিকাটি কোনও সময়ের মধ্যেই জনপ্রিয়তা অর্জন করেছে কারণ এটি তার লেখার মাধ্যমে জনগণকে সরকারের সাথে অত্যন্ত দুর্দান্তভাবে সংযুক্ত করে। অনলাইনের মাধ্যমেও আপনি www.newagebd.net ভিজিট করে সংবাদপত্রটি পড়তে পারেন

‘দ্য নিউ এজ’ এর সদর দফতরের ঠিকানাটি হল – হলিডে বিল্ডিং, ৩০, তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল, ঢাকা।
এই সংবাদপত্রের সঞ্চালনের সংখ্যা প্রায় 38,600।

07. দৈনিক ইত্তেফাক

এটি বাংলাদেশের বাংলা সংস্করণের প্রাচীনতম জাতীয় পত্রিকা। ইত্তেফাক গ্রুপ অফ পাবলিকেশনস এই পত্রিকার মালিক। পাকিস্তান আমল থেকেই এটি নিয়মিত প্রকাশিত হচ্ছে এবং এখনও এর জনপ্রিয়তা হ্রাস পায় না। যদিও এই সংবাদপত্রের সদর দফতরটি পাকিস্তানি বাহিনী বাধাগ্রস্ত করেছিল, পরে তারা তাদের দেওয়া ক্ষতিপূরণের অর্থ দিয়ে এটি পুনরায় প্রতিষ্ঠিত হয়। এটি বেশিরভাগ প্রচারিত সংবাদপত্রের তালিকার তালিকায়ও রয়েছে। প্রথমে এই পত্রিকাটি সাপ্তাহিক সংবাদপত্র হিসাবে প্রকাশিত হয়েছিল। তারপরে ধীরে ধীরে এটি একটি দৈনিক পত্রিকায় পরিণত হয়েছিল।

এই সংবাদপত্রটি ১৯৫৩ সালের ২৪ শে ডিসেম্বর প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল। এই পত্রিকার সম্পাদকের নাম তাসমিমা হোসেন। পাঠকগণ এই পত্রিকার হার্ড কপি এবং অনলাইন কপি উভয়ই পড়েন। সংবাদপত্রটি প্রতিদিন প্রায় 2,90,200 অনুলিপিগুলির জন্য মুদ্রিত হয়।

তাদের ওয়েব ঠিকানা www.ittefaq.com.bd এবং তাদের সদর দফতর ঠিকানা 40, কারওয়ান বাজার, ঢাকা।

06. দৈনিক জনকণ্ঠ

এটি বাংলাদেশের আর একটি জনপ্রিয় সংবাদপত্র, যা ১৯৯৩ সালের ২১ শে ফেব্রুয়ারি প্রথমবার প্রকাশিত হয়েছিল। জনকণ্ঠ শিল্পা পরিবহনের এই পত্রিকার মালিক।

এই সংবাদপত্রের অর্থটির অর্থ ‘ভয়েস অফ পিপল’। নামটি ভুল নয় কারণ এটি সংবাদপত্রে মানুষের শুভেচ্ছার, দুঃখ ও কষ্টের কথা প্রকাশ করে মানুষের আশা নিয়ে আলোকপাত করে। যদিও এটি একটি পুরানো সংবাদপত্র, এত বছর ধরে জনপ্রিয়তা হারাতে পারেনি। তদুপরি, এখন এটি অনলাইনেও প্রকাশিত হয়। আপনি তাদের অনলাইন সংস্করণটি www.dailyjanakantha.com এ পড়তে পারেন।

এই মোহাম্মদ আতিকুল্লাহ খান মাসুদের প্রকাশকের নাম। তিনিও সম্পাদক। এই সংবাদপত্রটি প্রতিদিন ২,০০০৫,০০০ এর বেশি অনুলিপিতে ছাপা হয়।

05. দৈনিক যুগান্তর

এটি বাংলাদেশের প্রাচীনতম এবং জনপ্রিয় একটি সংবাদপত্র। ২০০০ সালের পর থেকে এটি সাধারণ লোকদের কখনও হতাশ করেনি এবং লেখার মাধ্যমে তাদের চিন্তাভাবনা প্রকাশ করে চলেছে। এজন্য গ্রামীণ অঞ্চলের মানুষ এই সংবাদপত্রটি সবচেয়ে বেশি পড়েন এবং পছন্দ করেন। “ঘোড়া বাইরে”, “শাহিতো শমোয়িকি”, “প্রকৃতি ও জীবন” ইত্যাদি এই পত্রিকার আরও কয়েকটি জনপ্রিয় বৈশিষ্ট্য।

এই সংবাদপত্রের সঞ্চালনের সংখ্যা প্রায় 2,90,200। যমুনা গ্রুপ এই পত্রিকার মালিক। পত্রিকাটি প্রথম ফেব্রুয়ারী 2000 এ প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল। সালমা ইসলাম এই পত্রিকার প্রকাশক এবং সম্পাদকটির নাম সাইফুল ইসলাম।

তাদের সদর দফতর ঠিকানা – দৈনিক যুগান্তর, ঢাকা -৪৪৪ প্রগতি সরোনি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা। ওয়েব পোর্টালের ঠিকানা www.jugantor.com

04. দৈনিক বাংলাদেশ প্রতিদ্বন্দ্বী

এই সংবাদপত্রটি ইস্ট ওয়েস্ট মিডিয়া গ্রুপ (বসুন্ধরা গ্রুপের শাখা) দ্বারা 16 ই মার্চ 2010-এ প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল। এই সংবাদপত্রের সম্পাদক হলেন নাম নিজাম, তিনি একজন প্রবীণ সাংবাদিক। এবং মোয়নাল হোসেন চৌধুরী প্রকাশক।

এই সংবাদপত্র কর্তৃপক্ষ প্রতিদিন প্রায় 5,53,300 অনুলিপি প্রিন্ট করে।

তাদের স্থায়ী ঠিকানা প্লট -371 / এ, ব্লক-ডি, বসুন্ধরা আবাসিক এলাকা, বারিধারা, ঢাকা। অনলাইনের মাধ্যমে এই সংবাদপত্রটি পড়ার ওয়েব ঠিকানাটি হ’ল www.bd-praddin.com

03. ডেইলি স্টার

ডেইলি স্টার বাংলাদেশের ইংরেজি সংস্করণে সর্বাধিক জনপ্রিয় সংবাদপত্র। এটি বেশিরভাগ বিক্রি হওয়া ইংরেজি দৈনিক পত্রিকা এবং এটি বাংলাদেশের শীর্ষস্থানীয় ইংরেজি সংবাদপত্রও। তাদের সঞ্চালনের সংখ্যা এখন প্রায় 44,814। সৈয়দ মোহাম্মদ আলী ১৯৯১ সালের ১৪ ই জানুয়ারী এই পত্রিকাটি প্রতিষ্ঠা করেছিলেন। এই পত্রিকার মূলমন্ত্রটি “জনগণের জানার অধিকারের প্রতি প্রতিশ্রুতিবদ্ধ”। এটি বিভিন্ন ধরণের মানসম্পন্ন সামগ্রী প্রকাশিত হওয়ায় সমস্ত বয়সের লোকেরা এই সংবাদপত্রের প্রতি আকৃষ্ট হন। নিখুঁত অনুসন্ধান এবং পরীক্ষার সাথে সংবাদ প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ একটি খুব দুর্দান্ত কাঠামো বজায় রাখে।মাহফুজ আনাম পত্রিকার সম্পাদক ও প্রকাশক উভয়ই। মিডিয়াওয়ার্ল্ড সংস্থা এই কাগজটির মালিক।তাদের সদর দফতরের ঠিকানা –৪–, কাজী নজরুল ইসলাম অ্যাভিনিউ, ঢাকা। অনলাইনে সংবাদপত্র পড়ার জন্য www.thedailystar.net তাদের ওয়েব ঠিকানা।

02. দৈনিক কালের কণ্ঠ

কালের কণ্ঠ বাংলাদেশের সর্বাধিক পঠিত ও রেটেড সংবাদপত্র। এটি বাংলা সংস্করণে ছাপা হয়েছে। এই সংবাদপত্রটি ইস্ট ওয়েস্ট মিডিয়া গ্রুপের মালিকানাধীন। এটি 10 ​​ই জানুয়ারী 2010 এ প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল।

এই পত্রিকার সম্পাদকের নাম মোঃ ইমদাদুল হক মিলন, বাংলাদেশের খ্যাতিমান পন্যাসিক এবং প্রকাশক হলেন মেইনাল হোসেন চৌধুরী। তাদের সঞ্চালনের পরিমাণ প্রায় 2,90,200। এই সংখ্যাটি তাদের বাংলাদেশের দ্বিতীয় সর্বাধিক প্রচারিত দৈনিক পত্রিকার অবস্থান অর্জন করেছে।

পত্রিকার সদর দফতরের ঠিকানা প্লট নং -৩1১, ব্লক-এ, বসুন্ধরা বারিধারা। তাদের ওয়েব ঠিকানা হ’ল www.kalerkantho.com

01. দৈনিক প্রথম আলো

“প্রথম আলো” বাংলাদেশের সকল সংবাদপত্রের মধ্যে শীর্ষ অবস্থানে রয়েছে। প্রচলন সংখ্যা অনুযায়ী এটি বাংলাদেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম সংবাদপত্র। এটি বাংলাদেশেরও সর্বোচ্চ-রেটেড এবং সর্বাধিক জনপ্রিয় ছাপা সংবাদপত্র।

প্রথম আলো 1998 সালের 4 নভেম্বর প্রথম প্রকাশিত হয়েছিল। এই পত্রিকার সম্পাদক ও প্রকাশকের নাম মতিউর রহমান, তিনি সম্ভবত সাংবাদিক ছিলেন।“প্রথম আলো” এর অনলাইন পোর্টালটি বিশ্বব্যাপী সর্বাধিক দেখা এবং জনপ্রিয় বাংলাদেশী ওয়েবসাইট। তাদের ফেসবুক ফ্যান পৃষ্ঠাটি 75.7575 মিলিয়ন অনুগামী পেয়েছে, যা এখানকার বৃহত্তম সংখ্যা। এই সংবাদপত্রের সঞ্চালনের সংখ্যা 5,01,800।

লোকেরা প্রথম আলোকে সবচেয়ে বেশি পছন্দ করে কারণ এটি কখনই পক্ষপাতিত্ব করে না এবং কেবল সত্য সংবাদটি প্রকাশ করে। এবং আরও, তারা অনন্য উপায়ে সংবাদটি প্রকাশ করে। এই সংবাদপত্রের সবচেয়ে প্রিয় অংশটি হ’ল এটি সম্পাদকের কলাম যা সাম্প্রতিক সমস্যাগুলি পুরোপুরি বিশ্লেষণ করে। এজন্য প্রতিদিন দশ লক্ষেরও বেশি মানুষ এই সংবাদপত্রটি পড়েন। সংবাদপত্র সম্পর্কে আরও জানতে আপনি ওয়েব ঠিকানা www.prothom-alo.com দেখতে পারেন।

এই সংবাদপত্রের সদর দফতরটি প্রগতি বীমা ভবন, ২০-২১, কাওরান বাজার, ঢাকার মধ্যে রয়েছে। 

About toptenlistbd

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *